সিদ্ধান্ত আসেনি গার্মেন্টস খোলা নিয়ে

0
101










দেশের করোনা ভাইরাস অতি মহামারি পরিস্থিতিতে ঈদ পরবর্তী সময়ে কঠোর লকডাউন ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত সরকার কিছু নির্দিষ্ট শিল্প-কারখানা খোলা রাখার ঘোষণা দিলেও কোনো সিদ্ধান্তের কথা বলা হয়নি গার্মেন্টস ও অন্যান্য শিল্প কারখানা খোলার নিয়ে।



আজ(১৯ জুলাই) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানিয়েছে।



প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, দেশের চলমান অবস্থা চিন্তা করে আরোপিত বিধি -নিষেধের আওতামুক্ত থাকবে খাদ্য ও খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন/প্রক্রিয়াজাতকরণ মিল কারখানা, কোরবানির পশুর চামড়া পরিবহণ, সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং ঔষধ, অক্সিজেন ও কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য উৎপাদনকারী শিল্প কারখানা।



কারখানা নিয়ে নির্দিষ্ট করে আলোচনা হলেও প্রজ্ঞাপনে দেশের গার্মেন্টস ও শিল্প কারখানা খোলার বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। ফলে গত মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) জারি করা প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট বিধি-নিষেধ চলাকালীন বন্ধই থাকছে গার্মেন্টস ও শিল্প কারখানা।



প্রসঙ্গত, কোরবানির পশু পরিবহন ও ঈদে বাড়ি ফেরা সহজ করতে ১৪ জুলাই মধ্যরাত থেকে চলমান বিধিনিষেধ শিথিল করা হলেও ২৩ জুলাই থেকে আবার কঠোর লকডাউন শুরু হবে।করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় গত ১ জুলাই থেকে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন আরোপ করে সরকার। লকডাউনের সময়সীমা বাড়িয়ে পরে ১৪ জুলাই পর্যন্ত করা হয়।

পূর্ববর্তী নিবন্ধসমালোচনা করেও খালেদা জিয়া টিকা নিচ্ছেন -তথ্যমন্ত্রী
পরবর্তী নিবন্ধময়মনসিংহে মানবকল্যাণ ফোরামের ঈদবস্ত্র বিতরণ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে