সৃষ্টিকর্তার কাছে খাবার চান, তালেবান ক্ষুধা মেটানোর প্রতিশ্রুতি দেয়নি: হাসান আখুন্দ

0
522

রাজনৈতিক পটপরিবর্তন এবং যুদ্ধবিধ্বস্ত দশার ফলে চরম খাদ্য সংকটে পড়েছে আফগানিস্তান। অর্থনৈতিক অবস্থার দিক থেকেও দেশটি হতাশাজনক অবস্থার মধ্যেই দিন কাটাচ্ছে।

এ নিয়ে জনসম্মুখে দেয়া প্রথম ভাসনে দেশটির ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রী মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ জানিয়েছেন, জাতিকে খাওয়ানোর প্রতিশ্রুতি তালেবান দেয়নি। তিনি এ সময় জনগণকে ‘সৃষ্টিকর্তার’ কাছে খাবার চাইতে জানান।

সোমবার দেশটির স্থানীয় গণমাধ্যম খামা নিউজের এক প্রতিবেদনে এমন সব তথ্য উঠে এসেছে। জাতীয় রেডিও ও টেলিভিশনে হত শনিবার প্রচারিত এক বক্তব্যে ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রী এমনটিই জানান। দায়িত্বগ্রহণের পর এই প্রথমবারের মতো জনসম্মুখে বক্তব্য রাখলেন তিনি। 

ক্ষমতাচ্যুত আফগান প্রধানমন্ত্রী আশরাফ গনিকে দুর্নীতি ও তহবিল তছরুপের জন্য দায়ী করে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে তিনি বলেন, আশরাফ গনি প্রেসিডেন্ট প্যালেসের মধ্যে রীতিমতো একটি ব্যাংকই তৈরি করে ফেলেছিলেন। সাধারণ তালেবান যোদ্ধারা গনি ফেলে যাওয়া প্রচুর পরিমাণ নগদ অর্থ প্রেসিডেন্ট প্যালেসে খুঁজে পেয়েছেন।

এর আগে গত ১৫ আগস্ট তালেবান ক্ষমতায়নের মধ্যেই কাবুল ছেড়ে পালিয়ে যান আশরাফ গনি। অভিযোগ উঠেছিলো কাবুল ছেড়ে পালানোর সময় তিনি সঙ্গে প্রচুর অর্থ নিয়ে গিয়েছেন। তবে আশরাফ গনির দবি ছিলো জুতাটাও সাথে নিতে পারেন নি তিনি, অর্থ তো বহুদূর।

আফগানিস্তানের দীর্ঘদিনের মূদ্রাস্ফীতি ও বেকারত্বের অবস্থা তালেবান কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর থেকে আরও এক ধাপ বেড়েছে বলে বিশ্বমহলের দাবি। দেশটির ব্যাংকিং খাতে ধস নেমেছে। কাবুলের প্রায় ১০ বিলিয়ন সম্পদ ওয়াশিংটন জব্দ করার পরে আর্থিক সংকট আরও চরমে পৌঁছে যায়। বিশ্বব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আফগানিস্তানের তহবিলে প্রবেশাধিকার বন্ধ করে দিলে পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়।

বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশটিতে খাদ্য সংকট মোকাবিলা করাই তালেবান সরকারের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

পূর্ববর্তী নিবন্ধহেফাজতের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হিসেবে এসেছেন যিনি
পরবর্তী নিবন্ধরামপুরায় বাসচাপায় শিক্ষার্থী নিহত, সড়ক অবরোধ-অগ্নিসংযোগ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে