মুফতি রিজওয়ান রফিকীর জামিন মঞ্জুর

0
198

এস এম সাইফুল ইসলাম, প্রতিনিধি : আলোচিত ইসলামি বক্তা মুফতী রিজওয়ান রফিকী জামিনে কারাগার থেকে মুক্তি হয়েছেন। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর)আনুমানিক বিকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে কাশিমপুর কারাগার থেকে তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

এই বক্তার মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মুফতী রিজওয়ান রফিকীর বড়ভাই মুফতী আব্দুল্লাহ সালেহী। 


তিনি জানান, আমার ছোট ভাইকে গত (১৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর মুগদা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পাশ থেকে ডিবি হেফাজতে নেয়ার পর হেফাজত সহিংসতা মামলায় অজ্ঞাত আসামী সন্দেহে গ্রেফতার দেখানো হয়। আনুমানিক দুই মাস চৌদ্দদিন কারাবাসের পর গত মঙ্গলবার হাইকোর্ট থেকে জামিন লাভ করেন। তবে জামিনের চূড়ান্ত নোটিশ কারাগারে পৌঁছাতে বিলম্ব হওয়ায় ৬দিন পর কারাগার থেকে মুক্তি পায়।


তিনি বলেন, আমার ছোট ভাই মুফতী রিজওয়ান রফিকী দেশের সুনামধন্য একজন আলোচিত বক্তা। সে কোনধরনের রাজনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত নয়। সরকার বিরোধী কোন কার্জ কালাপের সাথেও তার সম্পৃক্ততা নেই,ছিলনা। শুধুমাত্র ইসলাম বিরোধী, দেশ বিরোধী, বাতিল অপশক্তি, কুফুরী সংগঠন হিজবুত তাওহীদের মুখোশ উন্মোচনে তার ভুমিকা অপরিসীম।


তিনি আরও জানান, কুরআন হাদিসের দলিলের মাধ্যমেই তাদের মুখোশ উন্মোচনে অগ্রমি ভুমিকা পালন করে যাচ্ছে আমার ভাই।এছাড়া হেফাজতে ইসলাম সহ কোন ধরনের সংগঠনের পদেও নেই সে। মূলত যে অপরাধের অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল সে অপরাধের বিন্দুমাত্র প্রমাণ ও মিলেনি। হেফাজত নেতা বলে গ্রেফতার করা হলেও সে হেফাজতের কেন্দ্রীয় বা জেলা, উপজেলা কমিটিতে নেই,ছিলনা। যারা আমার ভাইয়ের জন্য দোয়া করেছেন, তার জামিনের ব্যাপারে যারা বিভিন্ন ভাবে চেষ্টা শ্রম দিয়েছেন, আল্লাহ তায়ালা যেন সকলকে উত্তম বিনিময় দান করেন। আমি আমার ছোট ভাইকে কাছে পেয়ে মহান আল্লাহর প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।


মুফতী রিজওয়ান রফিকীর গ্রামের বাড়ি যশোর কেশবপুর থানার শ্রীরামপুরে হলেও তিনি গাজীপুর মারকাজুন নুর নামে এক মাদ্রাসার মহাপরিচালকের দায়িত্বে আছেন বলে জানা যায়।

পূর্ববর্তী নিবন্ধখালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে বাংলার মানুষের কোন মাথা ব্যথা নেই: নৌ প্রতিমন্ত্রী
পরবর্তী নিবন্ধঢাবির শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান বর্জনের যেই কারণ জানালেন ভিপি নুর

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে